সরাসরি প্রধান সামগ্রীতে চলে যান

কেন ধনতেরাসের দিন মূল‍্যবান বস্তু কেনা হয়

 ধনতেরাস কি এবং কেন ঐ দিন মূল্যবান দ্রব‍্য কেনা হয় // 2023 সালের ধনতেরাসের তারিখ ও পুজোর সময়সূচী কার্তিক মাসের ১৩ তম দিনে কৃষ্ণপক্ষের ত্রয়োদশী তিথিতে এই পালিত হয় ধনতেরাস বা ধন ত্রয়োদশী। কালী পুজোর ঠিক আগের দিন এই উৎসব পালিত হয়। পরিবারের সকলের মঙ্গল এবং ধন সম্পদ বৃদ্ধির আশায় বহু মানুষ এইদিন কুবেরে ও মালক্ষ্মীর আরাধনা করেন। পুরান মতে এই দিন ভগবান ধন্বন্তরির আবির্ভাব হয় সমুদ্র মন্থন থেকে। তার নাম থেকেই এই দিনের নাম ধনতেরাস। এই দিন ভগবান ধন্বন্তরিরও পুজো করা হয়।এই দিন প্রত‍্যেকে কোন না কোন মূল্যবান ধাতু, যেমন সোনা,রুপো,পিতল ইত্যাদি বা বাসনপত্র অথবা নতুন পোশাক কিনে থাকেন। ধনতেরাসের দিন কেন সোনা রুপো কেনা হয় সে নিয়ে অনেক পৌরাণিক কাহিনী রয়েছে তার মধ্যে যেটি বহুল প্রচলিত সেটি হল : রাজা হিমের অভিশাপ ছিল যে বিয়ের মাত্র চার দিনের মাথায় তার সর্প দংশনে মৃত্যু হবে। তাই স্বামীকে নিশ্চিত মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচানোর জন্য নববধূ তাদের শয্যা কক্ষের বাইরে প্রচুর ধন-সম্পদ, সোনা রুপোর গয়না, বাসনপত্র সাজিয়ে রেখেছি নববধূ। যমরাজ সেখানে এলে ঘরের দরজায় গয়নার জৌলুস এবং প্রদীপের আলোতে তার চোখ ধাঁধিয়ে যায় এ

Science Behind Hanuman Chalisa - বিজ্ঞান ও হনুমান চালিসা

Science behind Hanuman Chalisa / Science in Hanuman Chalisa - বিজ্ঞান ও হনুমান চালিসা।


Science in Hanuman Chalisa, Science Behind hanuman Chalisa
Science in Hanuman Chalisa


Science behind Hanuman Chalisa? Hanuman Chalisa তে বিজ্ঞান? আপনারা অনেকেই এই কথা শুনে হয়ত হাসছেন। কেও কেও আবার অবাক হচ্ছেন। ভাবছেন কি সব বাজে কথা। বিজ্ঞানের সঙ্গে হনুমান চালিসার মিল কোথা থেকে এল?

উত্তরে বলতে পারি হ্যাঁ, অবশ্যই Hanuman Chalisa র সঙ্গে science এর কোথাও একটি নয় অনেক গুলো মিল রয়েছে। এই Article টি মন দিয়ে পরুন তাহলেই বুঝতে পারবেন "Science behind Hanuman Chalisa" বা "বিজ্ঞান ও হনুমান চালিসার " মধ্যে মিল কোথায়। 


প্রথম প্রমাণ : তুলসীদাস কর্তৃক হনুমান চালিসা রচনা হয় ষোড়শ শতকে আকবরের সময় কালে। সেই সময় রচিত হনুমান চালিসায় সূর্য থেকে পৃথিবীর দূরত্বের উল্লেখ রয়েছে। কি অবাক হচ্ছেন? জিনিসটা অবাক করার মতই। Hanuman Chalisa র আঠারোতম পংক্তি একবার দেখেনি ভাল করে :



                   যুগ সহস্র যোজন পর ভানূ |
          লীল্যো তাহি মধুর ফল জানূ || আঠারো  ||

খুব ভাল করে পংক্তিটি লক্ষ করুন। যুগ সহস্র যোজন পর ভানূ। এখানেই পৃথিবী থেকে সূর্যের দূরত্বের কথা রয়েছে। আসুন এবার গাণিতিক প্রয়োগ করে বিষয়টি স্পষ্ট করি।

1 যুগ = 12000 বছর।
1 সহস্র = 1000
1 যোজন = 8 মাইল।
যুগ সহস্র যোজন = 12000 × 1000 × 8 মাইল 
                          = 96000000 মাইল।
1 মাইল = 1.6 কিলোমিটার।
96000000 মাইল = 15,36,000 কিলোমিটার।

এবার NASA প্রদত্ত তথ্য অনুযায়ী পৃথিবী থেকে সূর্যের দূরত্ব কত জানেন? দূরত্বটি হল প্রায় 14,96,000 কিলোমিটার।
এবার আপনি হয়ত আপনার  বুঝতে অসুবিধা হবার কথা নয় যে Science Behind Hanuman Chalisa তত্ত্বটি।


দ্বিতীয় প্রমান : আপনারা রসায়ন বিজ্ঞানের Diminutive form এবং Gigantic form এর কথা শুনেছেন? এটি হল যে কোন বস্তুর আকার অতি ছোট বা অতি বড় করবার একটি তত্ত্ব। আমাদের শরীর অসংখ্য অ্যাটম নিয়ে তৈরি। এই অ্যাটম এ থাকে নিউক্লিয়াস। এই নিউক্লিয়াসের চারি ধারে ইলেকট্রন ঘোরে। এই ইলেকট্রনের ভড় খুব কম হয়। যদি এই ইলেকট্রনের ভড় বাড়িয়ে দেওয়া হয় বা ইলেকট্রনের পরিবর্তে অন্য কিছু নেগেটিভ চার্জ রয়েছে কিছু বসান হয় যার ভর ইলেকট্রনের তুলনায় অনেক বেশি তাহলে আমাদের শরীরের আকার অনেক ছোট করা সম্ভব।



আবার সুর্য থেকে আসা neutrino পার্টিকাল প্রতিনিয়ত আমাদের শরীর পারাপার করছে। এই neutrino র  তরঙ্গদৈর্ঘ্য যদি কোন ভাবে বদলে দেওয়া যায় তাহলে আপনার শরীরের আকার অনেক বড় করা সম্ভব।

ঠিক এই বিষয়েরই উল্লেখ আছে হনুমান চালিসাতে। আপনি নবম পংক্তি দেখুন।

                 সূক্ষ্ম রূপধরি সিযহি দিখাবা |
          বিকট রূপধরি লংক জরাবা || নয় ||

এখানে হনুমানজীর Diminutive form অর্থাৎ সূক্ষ রুপ আবার  Gigantic form অর্থাৎ বিকট রুপ বলা হয়েছে।
                    

তৃতীয় প্রমাণ  : Hanuman Chalisa র আঁটত্রিশ তম পংক্তিতে বলা হয়েছে :


             জো শত বার পাঠ কর কোযী।
        ছূটহি বংদি মহা সুখ হোযী  ।। আঁটত্রিশ।। 

এই পংক্তিতে বলা হয়েছে, যে একশত বার হনুমান চালিসা পাঠ করবে তার সমস্ত সঙ্কট দূর হয়। বলা হয়ে থাকে কেউ কোনো বিপদে পড়লে একশ বার হনুমান চালিসা পড়বার কথা। কিন্তু এখন প্রশ্ন হল এখানে বিজ্ঞানের সঙ্গে মিল কোথায়। এবার এর উওর খোঁজা হোক।

আপনারা হয়তো মনঃস্তত বিজ্ঞানের Affirmation পদ্ধতির কথা শুনেছেন। যারা জানেন না তাদের বলছি এই Affirmation পদ্ধতি হল কোন  কিছুর problem এ positive চিন্তা বারবার করা। মানে আপনি যদি কোন বিপদে পড়েন তাহলে যদি আপনি বারবার ভাবতে থাকেন যে আমি এই সমস্যা থেকে বের হবই এই সমস্যার মোকাবেলা সামনে থেকে করব তাহলে আপনার ব্রেনে সেই problem এ লড়াই করার শক্তি জন্মাবে। একথাও প্রমানিত সত্য যে আপনি যদি আপনি কোন সমস্যার মধ্যে পড়েন আর আপনি যদি বারবার  postive affirmation করেন তাহলে আপনার সেই সমস্যার সমাধান হয় খুব সহজেই।

ঠিক এই খানেই Science in Hanuman Chalisa কথাটি সত্য প্রমানিত। কখনও কোন বিপদের মুখে একশত বার হনুমান চালিসা পাঠ করলে আপনি সেই বিপদ মোকাবেলা করার সাহস পাবেন। আপনি সেই postive affirmation অভ্যেস করছেন। এই রকম বিপদের মুখে Hanuman Chalisa পাঠ করলে বিপদ মুক্ত হয়েছেন কোটি কোটি ভক্ত।

এবার আপনি হয়ত বুঝতে পারছেন Science Behind Hanuman Chalisa বা Science in Hanuman Chalisa কথাটির সত্যতা। আপনি মানেন আর না মানেন Hanuam Chalisa ভক্তি ভরে পাঠ করে উপকার পায় অজস্র মানুষ। যদি উপকার নাই হোত, যদি ফল লাভ না হত তাহলে হনুমান চালিসা এত জনপ্রিয় হত না। শতকের পর শতক এই হানুমান চালিসা পাঠ করবার রীতি বজিয়ে থাকত না।

1. Read Hanuman Chalisa in Bengali click here.
2. Read Hanuman Chalisa in Bengali with it's full meaning click here.
3. Read Hanuman Chalisa in English click here.
4. Read Hanuman Chalisa in English with it's full meaning click here.
5. Read Bengali Hanuman Chalisa click here.


মন্তব্যসমূহ

এই ব্লগটি থেকে জনপ্রিয় পোস্টগুলি

বাংলা ভাবানুবাদে হনুমান চালিসা।

Bangla Translated Hanuman Chalisa  - বাংলা হনুমান চালিসা / হনুমান চালিসার বাংলা লিরিক্স  Bangla translated Hanuman Chalisa হলো তুলসী দাস রচিত Hanuman Chalisa র বাংলা অনূবাদ। বাংলা ছন্দে হনুমান চালিসা একটু বিরল। তুলসীদাস রচিত বাংলা ও ইংরেজি হরফে Hanuman Chalisa আপনি আমাদের ব্লগেই পাবেন যথাক্রমে Hanuman Chalisa in Bengali এবং Hanuman Chalisa in English শীর্ষক পোস্টে।  পুরোপুরি বাংলা ছন্দে Bangla Hanuman Chalisa এবং Hanuman Chalisa র bengali lyrics আপনাদের কাছে উপস্থিত করছি। আশাকরি আপনাদের ভাল লাগবে। Jay Sri Ram                   দোহা শ্রী রামের চরণ পদ্ম করিয়া স্মরণ। চতুর্বর্গ ফল যাহে লভি অনুক্ষণ।। বুদ্ধিহীন জনে ওহে পবন কুমার। ঘুচাও মনের যত ক্লেশ ও বিকার।।               চৌপাঈ 1। জয় হনুমান জ্ঞান গুণের সাগর।     জয় হে কপীশ প্রভু কৃপার সাগর।। 2। শ্রী রামের দুত অতলিত বলধাম।      অঞ্জনার পুত্র পবনসুত নাম।। 3। মহাবীর বজরঙ্গি তুমি হনুমান।     কুমতি নাশিয়া করো সুমতি প্রদান।। 4। কাঞ্চন বরন তব তুমি হে সুবেশ।     কর্নেতে  কুন্ডল শোভে কুঞ্চিত

বাংলায় Bajrang Baan পাঠ

Shri Bajrang Baan in Bengali with pdf / Bajrang Baan Lyrics in Bengali Bajrang Baan মহাদেবের একাদশতম রুদ্র রুপ  হনুমানজীর অন্যতম রুপ হল বজ্ররুপ।হনুমানজীর বজ্ররুপের আরাধনায় এই বজরং বান পাঠ করা হয়। কোন ঘোর সঙ্কটে দ্রুত উদ্ধারের জন্য হনুমান চালিশার সঙ্গে সঙ্গে এই Bajrang Baan পাঠ করতে হয়।  শ্রী বজরং বাণ দোহা নিশ্চয় প্রেম প্রতীতি,  বিনয় করি সম্মান। তহি কে করজ সকল শুভ,  সিদ্ধ করেঁ হনুমান।। চৌপাই জয় হনুমন্ত সন্ত হিতকারী। সুন লীজৈ প্রভু অরজ হামারী।। জনকে কাজ বিলম্ব ন কীজে। আতুর দৌরি মহাসুখ দীজে।। জ্যয়সে কুদি সিন্ধু মহি পারা। সুরসা বদন পৈঠি বিস্তরা।। আগে জাঈ লঙ্কিনী রোকা। মারেহু লাথ গই সুর লোকা।। জয়ে বিভীষণ কো সুখ দীনহা। সীতা নিরখি পরম পদ লীনহা।। বাগ উজারি  সিন্ধু মহঁ বোরা। অতি আতুর যম কাতর তোরা।। অক্ষয় কুমারা মারি সংহারা। লুম লপেট লঙ্ক কো জারা।। লহ সমান লঙ্ক জরি গই। জয় জয় ধ্বনি সুরপুর মহঁ ভই।। অব বিলম্ব কেহি করন স্বামী। কৃপা করহু উর অন্তর্যামী।। জয় জয় লক্ষন প্রান

অর্থসহ বাংলা Hanuman Chalisa

Hanuman Chalisa in Bengali with it's Meaning   - সম্পূর্ণ অর্থ সহ বাংলা Hanuman Chalisa Hanuman Chalisa in Bengali with it's meaning বাংলায় যাকে বলে সম্পূর্ন অর্থ সহ Hanuman Chalisa হল হনুমান চালিশা পাঠ করার এক মৌলিক দিক। হানুমান চালিসা পাঠ করবার সময় তার অর্থ বুঝে পাঠ করলে দ্রুত ফললাভ হয়। তাই Hanuman Chalisa চালিসা পাঠ করবার সময় অবশ্যই তার মানে বুঝে পাঠ করবেন। হনুমানজীর ভক্তদের কথা মাথায় রেখে  Hanuman Chalisa in Bengali এবং  তার সঙ্গে Hanuman Chalisa in Bengali with meaning দুটোই প্রকাশ করা হল।              বাংলায় হনুমান চালিসা   দোহা শ্রী গুরু চরণ সরোজ রজ নিজমন মুকুর সুধারি | বরণৌ রঘুবর বিমলযশ জো দাযক ফলচারি || বুদ্ধিহীন তনুজানিকৈ সুমিরৌ পবন কুমার | বল বুদ্ধি বিদ্যা দেহু মোহি হরহু কলেশ বিকার্ ||   বাংলা অনুবাদ :   শ্রী গুরু চরণ রূপ কমলের পরাগের দ্বারা নিজের মন রূপ দর্পণ পরিষ্কার করে রঘুবর শ্রীরামচন্দ্রের বিমল বর্ণনা করতে প্রবৃত্তি হচ্ছে। শ্রী রামের এই কীর্তিগাথা ( ধর্ম, অর্থ, কাম এবং মোক্ষ ) চতুর্বিধ পুরুষার্থই প্র

বাংলা অর্থসহ Shiv Chalisa এবং তার উপকারিতা ও পাঠের নিয়ম

Shiv Chalisa with Bengali meaning and its Benefits and Rules of Chanting :                               শিব ঠাকুরকে অতি সহজে প্রসন্ন করা যায় নিয়মিত Shiv Chalisa পাঠ করে। হনুমান জীকে ভগবান শিবের একাদশতম অবতার মানা হয়ে থাকে। আমরা এতদিন হনুমান চালিশা সম্পর্কে বিস্তর আলোচনা করেছি। আজ আমরা বিস্তারিত ভাবে জেনে নেব এই বাংলা অর্থসহ Shiv Chalisa এবং তার উপকারিতা ও পাঠের নিয়ম সম্পর্কে । আমরা যে যে বিষয় আলোচনা করব তা হল :  1. শিব চালিশা পাঠ করবার উপকারিতা। 2.এটি পাঠ করবার বিধি অর্থাৎ কখন এবং কোন নিয়মে পাঠ করা উচিত, কি কি উপকরণ লাগে, কতবার পাঠ করা উচিৎ। 4.সম্পূর্ন বাংলা অর্থসহ নির্ভূল শিব চালিশা। 5.এই চালিশা সম্পর্কিত একটি Video. শিব চালিশা পাঠ করবার উপকারিতা : এই চালিশা পাঠ করে একজন ভক্ত যা যা উপকার পেতে পারে তা হল : আপনার মনের যেকোন সৎ ইচ্ছে পূরণ করে এর নিয়মিত পাঠ। নিয়মিত শিব চালিসার পাঠ বৈবাহিক সমস্যা দূর হয় এবং সম্পর্কের সমস্যা সমাধানে সহায়তা করে। মাদকাসক্তি, অন্য কোন নেশা, তামাক আসক্তি, সিগারেটের আসক্তি, পাশাপাশি জুয়ার আসক্তি থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য এই চালিশার পাঠ নিয়মিত করা প্রয়োজন।

Bajrang Baan with full Meaning - সম্পূর্ণ বাংলা অর্থ সহ Bajrang Baan

Bajrang Baan in Bengali with Full Meaning : Bajrang Bali বজরং বাণ পাঠের এক মৌলিক নিয়ম হল এর অর্থ সহ পাঠ। হনুমানজীর বজরং রুপের আরাধনা করতে এই বজরং বাণ পাঠ করা হয়। যেকোন মন্ত্র বা স্তব পাঠ করার সময় এর অর্থ বুঝে পাঠ করলে এর মাহাত্ম অনুধাবন করা যায়। একটি গুরুত্বপূর্ণ কথা এই বজরং বাণ সব সময় সব পরিস্থিতিতে দয়া করে পাঠ করবেন না। কখন কোন পরিস্থিতিতে এটি পাঠ করা যায়, এটি কিভাবে পাঠ করতে হয় এ বিষয়ে বিশদে জানতে এখানে Click করুন। বজরং বাণের pdf পেতে এখানে Click করুন। শ্রী বজরং বাণ দোহা নিশ্চয় প্রেম প্রতীতি,  বিনয় করি সম্মান। তহি কে করজ সকল শুভ,  সিদ্ধ করেঁ হনুমান।। যে সমস্ত ভক্তরা প্রেম ও অটল বিশ্বাসের সঙ্গে এই চৌপাঈ গুলি  পাঠ করেন তাদের মনের সমস্ত শুভ মনস্কামনা হনুমানজী পূর্ণ করেন।  চৌপাই জয় হনুমন্ত সন্ত হিতকারী। সুন লীজৈ প্রভু অরজ হামারী।। জনকে কাজ বিলম্ব ন কীজে। আতুর দৌরি মহাসুখ দীজে।। হে হনুমানজি ভক্তদের উপকারী,আমার প্রার্থনা শুনুন ভক্তদের কাজে বিলম্ব করবেন না,আপনি ছুটে যান আর আপনার ভক্তদের মহাসুখ প্রদান করুন।